রুট ক্যানাল( root canal treatment) ট্রিটমেন্ট কি ও কেন করাবেন ?

by isk 0 Comments
রুট ক্যানাল( root canal treatment) ট্রিটমেন্ট কি ও কেন করাবেন ?

ডায়াবেটিক ফুট ও অর্থোপেডিক সমস্যার জন্য
পরামর্শ নিতে কল করুন 01674659548

প্রিয়জনের উপকার করুন, শেয়ার করুন-

কখনো কখনো আপনার ডেন্টিস্ট বলতে পারেন যে আপনার কোন একটি কিংবা একাধিক দাঁতে রুট ক্যানাল ট্রিটমেন্ট করা লাগবে। এই রুট ক্যানাল ট্রিটমেন্ট কি ও কেন জরুরী তা সম্পর্কে সম্যক ধারনা থাকা দরকার প্রত্যেকের। তাই নিয়েই এই লেখা।

# রুট ক্যানাল ট্রিটমেন্ট/Root canal Treatment কি?

মানুষের দাঁতের চারটি অংশ থাকে।
১) এনামেল
২) সিমেন্টাম
৩) ডেন্টিন
৪) পাল্প

এনামেল হল দাঁতের ওপরের সুরক্ষা আবরন। ডেন্টিন হল দাঁতের মূল শক্ত অংশ বা শরীর বলতে পারেন। আর পাল্প হল দাঁতের ভেতরে ফাঁপা অংশে থাকা নরম মজ্জা। সিমেন্টাম হল দাঁতের শেকড়ের ওপরের আবরন।

ডেন্টাল ক্যারিজ বা দাঁত ক্ষয় নিয়ে আমাদের এই লেখাটি যদি পড়ে থাকেন তবে আপনি অবশ্যই জানেন যে ক্যারিজ শুরু হলে তা ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে। প্রথমে দাঁতের ওপরের আবরন এনামেল ধীরে ধীরে ক্ষয় হয়। একবার এনামেল নষ্ট হলে এরপর তুলনামূলক দ্রুত ডেন্টিন নষ্ট হতে থাকে এবং ক্যারিজ ও ব্যাকটেরিয়া দাঁতের মজ্জার কাছাকাছি চলে আসে। এসময় মাঝে মাঝেই দাঁতে শিরশির কিংবা হালকা ব্যাথার অনূভূতি হতে পারে। এই সময় পর্যন্ত দাঁতের চিকিৎসা ফিলিং এর মাধ্যমে করা সম্ভব হয়।

আক্কেল দাঁত কখন এবং কেন ফেলতে হয় ?

ক্যারিজ পাল্প বা দাঁতের মজ্জা পর্যন্ত পৌঁছে গেলে তখন দাঁতে নিরবচ্ছিন্নভাবে বা তীব্র ব্যাথা হতে থাকে। একে ডেন্টিস্ট্রির ভাষায় বলা হয় Irreversible Pulpitis। যদিও অনেক ক্ষেত্রে ব্যাথার পরিমান অনেক কম হতে পারে। এসব ক্ষেত্রে রোগীর অজান্তেই ক্যারিজ অনেকখানি বেড়ে যায়। একে বলে Pulp necrosis। এসব ক্ষেত্রে চিকিৎসা ফিলিং এর মাধ্যমে করা সম্ভব হয় না। তখনই আপনার ডেন্টিস্ট আপনাকে রুট ক্যানাল চিকিৎসা করার পরামর্শ দেন। এছাড়াও আরো কিছু ক্ষেত্রে রুট ক্যানাল ট্রিটমেন্ট এর প্রয়োজন হতে পারে যেমন আলগা দাঁত স্থায়ীভাবে লাগানোর জন্য। কিন্তু ডেন্টাল ক্যারিজ থেকে রুট ক্যানাল প্রয়োজন হবার সম্ভাবনাই সবচেয়ে বেশি।

# কি হবে যদি আপনি প্রয়োজন স্বত্বেও রুট ক্যানাল ট্রিটমেন্ট না করান ?

Irreversible Pulpitis এর ব্যাথা সাধারনত দীর্ঘদিন স্থায়ী হয়না। দাঁতের মজ্জা নষ্ট হওয়ায় আস্তে আস্তে ব্যাথার অনুভূতি কমে আসে। কিন্তু দাঁতের ক্যারিজ প্রক্রিয়া থেমে থাকেনা। দাঁত ক্রমাগত ক্ষয় হতেই থাকে এবং নষ্ট হয়ে যাওয়া মজ্জা দাঁতের শেকড়ের নীচে ইনফেকশন তৈরি করে। একটা সময় পর দাঁতের গোড়া ফুলে ওঠে। তখন নতুন করে ব্যাথা শুরু হয় এবং দাঁতের গোড়া থেকে পুঁজ আসতে থাকে।

এরপরও যদি চিকিৎসা না করা হয় তখন এই ইনফেকশন সিস্ট(Cyst) এ রুপ নেয়। সিস্ট প্রচুর পরিমানে হাড় ক্ষয় করে বড় আকারে ফুলে উঠতে পারে তখন এটিকে সার্জারির মাধ্যমে চিকিৎসা করতে হয়।

# চাইলেই কি রুট ক্যনাল করা যায়?

এই সিদ্ধান্ত আসলে রোগীর চেয়ে চিকিৎসক এর ওপর নির্ভর করে বেশি। অনেক সময়ই যতদিনে রোগী চিকিৎসক এর শরণাপন্ন হন, ততদিনে ক্যারিজ দাঁতের বড় একটা অংশকে নষ্ট করে ফেলে। চিকিৎসক যদি মনে করেন রুট ক্যানাল করে দাঁতকে রক্ষা করা সম্ভব হবেনা তখন আসলে ইচ্ছা থাকা স্বত্বেও আপনি আর রুট ক্যানাল করাতে পারবেন না। তখন দাঁত ফেলে দেয়াই উত্তম চিকিৎসা হবে। কিভাবে অবহেলায় দাঁতের চিকিৎসা খরচ ও জটিলতা বাড়ে তাও আমাদের এই ইনফোগ্রাফে দেখানোর চেষ্টা করা হয়েছে।

রুট ক্যানাল ট্রিটমেন্টে কি করা হয় ?

রুট ক্যানাল একটি অতি সুক্ষ্ণ এবং সময়সাপেক্ষ কাজ। যদিও এই সময়ের পরিমান ডাক্তার এবং রোগীর সুবিধা অনুযায়ী কমবেশি করে নেয়া যায় কিন্তু স্বাভাবিকভাবে একটি রুট ক্যানাল চিকিৎসায় দু সপ্তাহ সময়ে তিন চার এপয়েন্টমেন্ট লেগেই যায়। পুরো প্রক্রিয়টি বেশ জটিল ও চিকিৎসকের দক্ষতার ওপর ব্যাপকভাবে নির্ভরশীল।

একেবারে সহজ ভাষায় যদি ব্যাখ্যা করতে হয়, এই সময়ে দাঁতের শেকড়ের ভেতর থেকে ইনফেক্টেড মজ্জার সবটুকু বের করে শেকড়ের শেষ পর্যন্ত সুক্ষ্ম সুইয়ের মত ফাইলের মাধ্যমে পরিষ্কার করা হয় এবং সেখানে বিশেষ ড্রেসিং দেয়া হয়। এতে দাঁতের ভেতরে প্রবেশ করা জীবানু ধ্বংস হয়। নির্দিষ্ট সময় পর এই মজ্জার ফাঁকা স্থানে এবং একেবারে শেকড়ের শেষ পর্যন্ত, গাটাপার্চা(Gutta percha) নামক একধরনের রেজিন ও ড্রেসিং দিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়।

ক্যারিজে নষ্ট হওয়া অংশ ফিলিং কিংবা ক্রাউন করার মাধ্যমে আগের রুপে ফিরিয়ে আনা যায়।

# রুট ক্যানাল ট্রিটমেন্ট কতদিন স্থায়ী হবে ?

স্থায়ীত্বের কথা বলতে গেলে এখানে অনেকগুলো ফ্যাক্টর আছে। প্রত্যেক রোগী এবং প্রত্যেক দাঁত ভিন্ন। যেমন ক্যারিজ যত বেশি থাকবে, রুট ক্যানাল চিকিৎসার পর দাঁতের স্থায়ীত্ব তত কম হবার সম্ভাবনা বেশি। তাই দ্রুত চিকিৎসক এর শরণাপন্ন হওয়া উচিত। বাকী দাঁতগুলোর অবস্থা,রোগীর দাঁতের প্রতি যত্ন,শারীরিক অন্যান্য রোগ যেমন ডায়াবেটিস এসবের জন্য স্থায়ীত্ব কমবেশি হয়ে থাকে। স্থায়ীত্ব কতটুকু হবে এটা প্রত্যেক দাঁতের ক্ষেত্রেই ভিন্ন এবং পিনপয়েন্ট করে বলা কঠিন।

সম্পাদনাঃ

ডাঃ ইরফান উদ্দিন

আইডেন্ট ডেন্টাল এন্ড ইমপ্ল্যান্ট সেন্টার

ইউনিট ১ঃ হাজী মকবুল টাওয়ার (২নং সিড়ি দিয়ে ২য়তলা)পাহাড়তলী, রাউজান

ইউনিট ২ঃ নাছির টাওয়ার, ২য় তলা,অগ্রণী ব্যাংকের পাশে, গহিরা,রাউজান

যোগাযোগঃ ০১৮১৮৭০১৩৭৬


প্রিয়জনের উপকার করুন, শেয়ার করুন-

Leave a reply

Your email address will not be published.

You may use these HTML tags and attributes:

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>