জন্ডিসে কি কি টেস্ট করা হয় ?

জন্ডিস টেস্ট নাম
প্রিয়জনের উপকার করুন, শেয়ার করুন-

জন্ডিস কোন রোগ নয়।এটি লিভারের ইনফেকশন বা হেপাটাইটিস।জন্ডিস রোগের লক্ষণ মাত্র,এটি নিজে কোন রোগ নয়।লিভারের যেকোনো জটিলতার কারণে চোখ হলুদ হওয়া, প্রস্রাব হলুদ হওয়া, খাওয়ায় অরুচি, মুখগহ্বর হলুদ হওয়া এবং কারো কারোর ক্ষেত্রে চামড়া প্রযন্ত হলুদ হয়ে যাওয়া। এটাকে জন্ডিসের লক্ষণ হিসেবে ধরা হয়।বাংলাদেশে হেপাটাইটিস বা জন্ডিসে বছরে ২০ হাজার মানুষ মারা যায়।

জন্ডিস সাধারণত ২ কারণে হয়ে থাকেঃ

১) ভাইরাস জনিত কারণে, যেমন—

# হেপাটাইটিস-এ

# হেপাটাইটিস-বি

# হেপাটাইটিস-সি

# হেপাটাইটিস-ডি

# হেপাটাইটিস- ই

হেপাটাইটিস বি ও সি সবচেয়ে মারাত্মক।বাংলাদেশে হেপাটাইটিস বি ও সি তে ১ কোটি মানুষ আক্রান্ত।
তবে বাংলাদেশে হেপাটাইটিস-এ ও ই সবচেয়ে বেশী হয়।এগুলো স্বল্পমেয়াদী লিভার রোগ।বিশ্রাম নিলেই ঠিক হয়ে যায়।বাকী গুলোর জন্য বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের ট্রিটমেন্ট নিতে হবে।

২) ভাইরাসের বাইরের কারণ, যেমন—

# পিত্তনালিতে পাথর হলে

# লিভারে টিউমার হলে

# লিভার ক্যান্সার হলে

সাধারণত রোগীর ৪০ বছর বয়সের নিচে যারা তাদেরকে ভাইরাসজনিত জন্ডিস ধারণা করা হয়। আর রোগীর বয়স ৪০ এর বেশি হলে তাকে ভাইরাসের বাহিরের কারণকে সন্দেহ করা হয়।সাধারণত জন্ডিসে শরীরের বিলিরুবিন বেড়ে যায়।

বিশেষজ্ঞ ডাক্তারগণ জন্ডিসে আক্রান্ত হলে বিভিন্ন ল্যাব টেস্ট দেন, যাতে রোগের কারণ ও তীব্রতা সর্ম্পকে ধারণা পাওয়া যায়।

জন্ডিস টেস্ট গুলোর নামঃ

১) Serum Bilirubin

2) Serum Bilirubin (direct) (child)

3) Serum Bilirubin (indirec) (child)

৪) SGPT

৫) SGOT

৬) Alkaline Phospatase (ALP)

৭) CBC

৮) Urine R/E

৯) Urine for Urobilinogen

১০) HBsAg

১১) HBeAg

১২) Anti-HBs

১৩) Anti-HBc

 

জন্ডিস টেস্ট রিপোর্ট :

Normal Range:

0.3 – 1.3 mg/dl

0.3 – 11.0 mg/dl (newborn)


প্রিয়জনের উপকার করুন, শেয়ার করুন-

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top