A Leading Doctor Chamber information Site In Chittagong

kk
4
22
a5
a3
2
5
dr3 (1)

ডায়াবেটিস টেস্ট (Diabetic Test) করার আগে এ বিষয় গুলো মনে রাখুন

Things to keep in mind before testing for diabetes

 

ডায়াবেটিস টেস্ট (Diabetes Test) খুবই সেনসিটিভ টেস্ট। সঠিক রেজাল্ট পেতে হলে রোগী,ডাক্তার ও টেকনোলজিস্ট  প্রত্যেকের  গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা আছে।টেস্টের রেজাল্টের উপর নির্ভর করবে আপনার “মেডিসিন ডোজ”।তাই টেস্টের প্রস্তুতি নিতে অবহেলা নয়।

১) ডায়াবেটিস এর বিভিন্ন ধরনের টেস্ট আছে,কোন ধরনের টেস্ট করবেন তা ডাক্তার এর কাছ থেকে জেনে নিন।

টেস্ট গুলো হল-

# ফাস্টিং ব্লাড সুগার (FBS)

# রেনডম ব্লাড সুগার (RBS)

# ২ আওয়ার আফটার ব্রেকফাস্ট (2HABF)

# ২ আওয়ার আফটার লাঞ্চ (2HAL)

# ও জি টি টি (OGTT)

ডায়াবেটিস সর্ম্পকে যে ১০টি প্রশ্ন ডাক্তারকে করতে ভুলবেন না

২) খালি পেট থাকার সময় ৮-১০ ঘন্টা।এর চেয়ে যাতে বেশী না হয়।কারণ যত সময় খালি পেট থাকবেন তত সুগার কমতে থাকবে।

 

 

৩) খালি পেট থাকার সময় পানি ছাড়া  অন্য কিছু খাওয়া যাবে না।পান বা সিগারেটও খাওয়া যাবে না।

 

 

৪) টেস্ট করার আগে হাটা-চলা বা শারীরিক কোন পরিশ্রম করবেন না। যে কোন অপ্রয়োজনীয়  শারীরিক মুভমেন্ট সুগার কমিয়ে দেবে।

ডায়াবেটিস কত হলে নরমাল আর কত হলে মানুষ মারা যায় ?

 

 

৫) গ্লূকোজ খাওয়ার পর অযথা হাটা-চলা করবেন না। গ্লূকোজ ও ৩০০এমএল পানি সবটুকুই খাবেন।

 

 

 

৬)  যদি কোন আন্টি-ডায়াবেটিক ঔষধ বা ইনসুলিন নেন তবে তা টেকনোলজিস্ট যিনি থাকবেন উনাকে অবশ্যই জানাবেন।

 

 

 

৭) করেসপন্ডিং ইউরিন স্যাম্পল দিতে অবহেলা করবেন না।

 

 

 

৮)  2 আওয়ার (2 hour breakfast/lunch) স্যাম্পল দিতে যদি দেরী হয় তবে টেকনোলজিস্ট যিনি আছেন উনাকে জানাবেন।

 

 

 

৯) 2 আওয়ার ব্রেকফাস্ট (2 hour breakfast/lunch) এ অনেকে চা বা বিস্কিট বা একটা রুটি খেয়ে স্যাম্পল দেন যা করবেন না।আপনি নিয়মিত যে পরিমাণ নাস্তা খান সেটুকু অবশ্যই খাবেন।না হলে রেজাল্ট কম আসবে।

 

 

 

১০)যদি অন্য কোন রোগের ঔষধ খান যেমন: হরমোন থেরাপি, জন্ম নিয়ন্ত্রণ পিল,এসপিরিন, মানসিক রোগের ঔষধ ইত্যাদি, তবে টেস্ট করার আগে ডাক্তার এর কাছ থেকে নির্দেশনা নিবেন।

 

ল্যাবে প্রস্রাব বা ইউরিন টেস্ট (Urine Test) করার আগে জেনে নিন

 

১১) আপনি যদি ল্যাবে হেঁটে আসেন বা সাইকেল চালিয়ে আসেন, তবে দায়িত্বরত ল্যাব টেকনোলজিস্টকে জানাতে ভুবেন না কারণ শারীরিক পরিশ্রম গ্লুকোজ কমিয়ে দেয়।এতে ভালো রিপোর্ট আসবে না।

 

 

 

১২) অনেক রোগীর রক্তে সুগার ও প্রস্রাবে সুগার এক নাও হতে পারে।এতে কনফিউজড হবেন না।

(প্রত্যেকটি টেস্টের আলাদা আলাদা প্রিপারেশন থাকে,যা মেনে টেস্ট করলে রিপোর্ট নিখুত ও নির্ভুল আসবে)

চট্টগ্রামের সেরা ১০ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *